A Bridge too far

Image

প্রথম কিস্তি
দ্বিমতের  অবকাশ নেই, বাংলাদেশীরা জাতি হিসেবে homogenous ! শ্যামলা গায়ের রঙ, উচ্চতা মাঝারী, চেহারা তেমন sharp নয়, চুল কালো। গড়ে শারীরিক অবয়বটা অনেকটা এরকম। সাধারনত  কমন জেনেটিক মেকআপ এর জন্যই এমনটি হয়।  আমি অনেকদিন ধরেই এ জাতির মানসিক দিকটি নিয়ে ভাবছি।  বিদেশী কিছু সার্ভেতে দেখা গেছে- এরা খুব সুখী। অত্যন্ত আনন্দের কথা। দারিদ্র, উষ্ণ জলবায়ু, রাজনৈতিক অস্থিরতা, ট্রাফিক জ্যাম, দুর্নীতি, বিশাল জনগোষ্ঠী ইত্যাদি সমস্যার পরেও এ জাতি কেন সুখী? আসলেই কি সুখী?  চাহিদা কম ?  জেনেটিক মেকআপের কথা আগেই বলেছি। জেনেটিক মেকআপ শুধু শারীরিক অবয়ব নির্ধারণ করে না, মানসিকতাও প্রভাবিত করে! এমনও  জিন ( Anger gene) আবিষ্কার হয়েছে, যার একটু “এদিক ওদিক” (gene mutation ) শুধু মাত্র রাগী মানুষদের শরীরে পাওয়া যায়।  কিছু gene mutation  হয়তো কাউকে করে অতিরিক্ত অভিমানী!
আচ্ছা, বাংলাদেশীদের কিছু exclusive  gene mutation তো হতেই পারে! একারণেই বোধ হয়, কেউ কেউ আমরা গাড়ি ভাঙ্গি, রাস্তাঘাটে গালি  গালাজ করি, কথা বেশি বলি, এবং এত সমস্যার পরেও নিজেদের সুখী ভাবি। আমরা কিছুটা পরশ্রীকাতরও  ( আমার জানামতে, পরশ্রীকাতরতার কোনো ইংরেজি নেই, শব্দটি একেবারেই বাঙালী জাতির উদ্ভাবন, এরকম আরেকটি শব্দ হলো অভিমান) ! সব সময় আবেগের তুঙ্গে অবস্থান আমাদের! আবার রানা প্লাজা ধসে পড়ে যখন, এ জাতির মানুষেরাই দিগ্বিদিক ভুলে ঝাপিয়ে পড়ে উদ্ধার কাজে, জীবনের তোয়াক্কা না করে! আমি ভাবছিলাম বাংলাদেশীদের  জেনেটিক মেকআপ নিয়ে। এদের জিনের “এদিক ওদিক” গুলো কেমন? কেন হলো? কিভাবে হলো? কবে হলো?Continue Reading